শরীরে কোন রোগ লুকিয়ে আছে কিনা তা নখ দেখেই বুঝে নিন..

শুধু আত্মরক্ষা বা সুন্দর করে সাজানোর জন্যেই নখ নয়। এর আরও গুরুত্ব আছে। জানেন কি নখ দেখে বলে দেওয়া যায় আপনার শরীরে কোন রোগ ঘাপটি মেরে আছে। জেনে নিন নখের ওপর কী দেখে কী বোঝা যায়। আর আপনার নখেও তেমন কিছু দেখলে আগাম সাবধানতা

অবলম্বন করুন বিশেষজ্ঞের পরামর্শে। 1. নেল ডেন্টস বা নখে ছোটো ছোটো গর্ত – এমন থাকলে বুঝতে হবে ব্যক্তির শরীরে বাত, চর্মরোগ বা ত্বকের ওপর ঘা আছে বা হওয়ার সম্ভাবনা আছে। তবে হ্যাঁ অনেক সময় অনেক ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থেকেও এমন সমস্যা হয়ে থাকে। 2.

নখে আড়াআড়ি ভাঁজ – তিন মাস ছ’ মাস অন্তর এমন ভাঁজ চোখে পড়ে? তা হলে বুঝতে হবে আপনি খুবই শারীরিক ও মানসিক চাপে আছেন। অথবা থাইরয়েড গ্রন্থির সমস্যা, ডায়াবেটিস, মামপস, রক্তসঞ্চালনের সমস্যা, নিউমোনিয়ার পূর্বাভাস বা খুব জ্বর হওয়ার পরও এই উপসর্গ দেখা দেয়। তবে অনেকের ক্ষেত্রে কেমোথেরাপির পর এই ধরনের উপসর্গ চোখে পড়ে। আবার যাঁরা এভারেস্টের মতো শরীরে শৃঙ্গ জয়

করে বেড়ান তাঁদের নখেও এমন দেখা যায়। মূলত জিঙ্ক আর আয়রনের অভাবে এমন হয়ে থাকে। 3. নখ চামচের মতো হলে – এই রোগটা চিকিৎসা জগতে কৈলনেছিয়া নামে পরিচিত। এই অবস্থায় নখ খুবই পাতলা হয়ে যায়। এটা অ্যানিমিয়া আর আয়রনের অভাবের পুর্বাভাস। তাই এমন দেখলে আগে থেকেই সচেতন হন। আর ব্যবস্থা নিন। কারণ আয়রনের আভাবে গ্যাস্ট্রোইন্টেস্টাইনাল ব্লিডিং, লিভারের সমস্যা, আলসার,

অর্শ্বরোগও হতে পারে। তা ছাড়া শরীরে পর্যাপ্ত হিমোগ্লোবিন তৈরির জন্য আয়রন প্রয়োজন। নখ চামচের মতো দেখতে হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে প্রচুর চুলও উঠতে শুরু করে। তাই খেয়াল রাখুন। 4.টেরি নখ – অর্থাৎ নখ সাদা হয়ে যাওয়া সঙ্গে একটা গোলাপী রঙের দাগ। এমন হওয়া মানে নেল বেড থেকে নখ আলাদা হয়ে যেতে পারে। কারণ রক্ত চলাচল ঠিক মতো হচ্ছে না। তা ছাড়া অ্যানিমিয়া, থাইরয়েড, ডায়াবেটিস,

হরমোনের সমস্যার উপসর্গ এই টেরি নেল। এই সমস্যা ছাড়াও হৃদরোগ, কিডিনির সমস্যারও আগাম খবর দেয় এই টেরি নখ। বয়স্কদের ক্ষেত্রে এই সমস্যা বেশি দেখা যায়। 5. ক্লাবড নেলস – এই ধরনের নখের আকৃতি হয় শেষের দিকটা মুড়ে যাওয়া বা গোল হয়ে যাওয়ার মতো। এই নখ যকৃত, ফুসফুসের গুরুতর সমস্যার ইঙ্গিত দেয়। রক্ত চলাচলের অভাবে এমন হয়।

About Susmita Roy

Check Also

যে কারনে মহিলাদের হাঁটুর সমস্যা বেশি হয়!

যে কারনে মহিলাদের হাঁটুর সমস্যা বেশি হয়!

আজকাল বেশিরভাগ মহিলাই মহিলাদের হাঁটু ব্যথার অভিযোগ করেন। সে বাড়িতে থাকুক বা কর্মজীবী ​​নারী। আজকাল …

Leave a Reply

Your email address will not be published.