রেস্টুরেন্ট স্টাইলে দুর্দান্ত স্বাদের আলুর দোপেয়াজা বানিয়ে ফেলুন বাড়িতেই, শিখে নিন রেসিপি

কম খরচে কিছু খেতে ইচ্ছা করছে! অতসী বাড়িতে চিকেন বা মটন কিছুই নেই! কি করবেন বুঝে উঠতে পারছেন না? তাহলে এবার বানিয়ে ফেলুন আলুর দোপেয়াজা। সব মধ্যবিত্ত বাড়িতেই আলু নিত্যদিনের রান্নার সঙ্গী।

আলোর উপস্থিতি রান্না ঘরে থাকে না এমন কোন বাড়ি পাওয়া দুষ্কর। রইল আলু দোপেয়াজা বানানোর জন্য স্টেপ বাই স্টেপ রেসিপি। চলুন তবে বিস্তারিত দেখে নেওয়া যাক-

প্রথমেই দেখে নেওয়া যাক উপকরণ এর জন্য কি কি লাগবে!
১-২ টি বড় আলু ১-২ টি পেঁয়াজ কুচি ১-২ টি পেঁয়াজের বড় করে কাটা ১-২ টি টমেটো টুকরো করে কাটা ১/২-১ টি টমেটো বাটা ১/২- ২টেবিল চামচ আদা রসুন বাটা কাঁচা লঙ্কা স্বাদ অনুসারে লবণ পরিমাণ মতো সর্ষের তেল পরিমাণমতো লঙ্কার গুঁড়ো ১/২-১ চা চামচ ধনে

গুঁড়ো ১/২-১ চা চামচ জিরে গুঁড়ো পরিমাণমতো চা চামচ হলুদ গুঁড়ো ১/২-১ চা চামচ গরম মশলা-গুঁড়ো পরিমাণমতো গোটা জিরে ১-২ টি শুকনো লঙ্কা ১-২ টি তেজপাতা

এবার রইল প্রণালী:
প্রথমেই আলুগুলো হালকা নুন এবং হলুদ দিয়ে ভেজে তুলে রাখতে হবে। তারপর একটা কড়াইয়ে তেল গরম করে পেঁয়াজ এর বড় বড় করে কেটে রাখা পাপড়ি গুলো ও টমেটোগুলো তেলের মধ্যে ভালোভাবে এক মিনিট নাড়াচাড়া করে তুলে নিতে হবে । তুলে রাখার পর পর আবার

পরিমান মত তেল দিয়ে কড়াইতে পরিমাণ মতো তেল দিয়ে গোটা জিরে ও শুকনো লঙ্কা ও তেজ পাতা ফোড়ন দিতে হবে। সেই ফোড়ণের মধ্যেই দিয়ে দিতে হবে পিয়াজ কুচি গুলো। পিয়াজ গুলো লাল হয়ে এলে ওর মধ্যেই টমেটো পেষ্ট, সমস্ত গুঁড়ো মশলা ও স্বাদ অনুসারে লবণ দিয়ে ভালোকরে কষিয়ে নিতে হবে। কষিয়ে নেওয়া মশলার মধ্যে ভাজা আলু গুলো যোগ করতে হবে ও আলু দিয়ে আরেকটু কষে নিয়ে অল্প

করে জল দিয়ে ঢাকা দিয়ে রান্না করতে হবে। যখন আলুগুলো বেশ সিদ্ধ হয়ে যাবে এবং ঝোলের পরিমাণ কিছুটা কমে আসবে তখন ভেজে রাখা পেঁয়াজের পাপড়িগুলো ও টমেটোর টুকরো গুলো দিয়ে ঢাকা দিয়ে দু মিনিট মতো আরো রান্না করতে হবে। এই পর্যায়ে লবণটা একটু চেখে দেখে নেওয়া যেতে পারে। বেশ শুকনো শুকনো হলে গরম মশলা গুঁড়ো দিয়ে একটু মিশিয়ে দিতে হবে। তারপরই গ্যাস অফ করে দিতে হবে। রুটি কিংবা পরোটা বা লুচির সাথে গরম গরম অত্যান্ত সুস্বাদু লাগে।

About Susmita Roy

Check Also

৬টি সহজ টিপস, যা আমরা অনেকেই জানি না!

৬টি সহজ টিপস, যা আমরা অনেকেই জানি না!

1. সহজেই ভালো-খারাপ ডিম চেনার উপায় : শহরের এই কাজের চাপে বারে বারে দোকানে যাওয়া …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *