মুখের ভেতরে ছাল উঠে গেলে যা করবেন

আপাতদৃষ্টিতে এমন কোনো গুরুতর সমস্যা মনে না হলেও এর ব্যথা কেবল ভুক্তভোগীরা জানেন। হয়তো কিছু খেতে নিয়েছেন টক অথবা ঝাল, তখনই মনে হলো যেন মুখের ভেতরটা জ্বলে গেল! হয়তো দাঁত মাজতে গিয়েই মুখের ভেতরে ছাল উঠে গেছে আর

সেখানটাতেই জ্বলুনি বেড়ে চলেছে। এ ধরনের সমস্যাকে ছোটখাটো সমস্যা মনে করে বেশিরভাগ মানুষই চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন না। তখন আস্থা রাখতে হয় ঘরোয়া সমাধানে। নানি-দাদিরা বলতেন মুখের ভেতর চিনি রেখে দেওয়ার কথা। তবে এটি ছাড়াও মুখের ভেতরের আলসার বা ছাল উঠে যাওয়ার সমস্যা কমানোর আছে কিছু উপায়। জেনে নিন, কী সেই উপায়গুলো- 1.হলুদ-পানি দুই টেবিল চামচ

হলুদের গুঁড়া ও এক টেবিল চামচ পানি নিন। এবার এই দুই উপাদান দিয়ে ভালোভাবে পেস্ট তৈরি করে নিন। মুখের ভেতরে যেখানটাতে ছাল উঠে গেছে, সেখানে লাগিয়ে নিন। এভাবে মিনিট পাঁচেক রেখে দিতে হবে। এরপর কুলকুচি করে নিন বা দাঁত মেজে নিন। এক্ষেত্রে নরম ব্রাশ ব্যবহার করবেন। সাধারণত মুখের ভেতর বাসা বেঁধে থাকা জীবাণুর কারণে মাউথ আলসার হয়। হলুদ এমন একটি উপকারী

ভেষজ যা সব ধরনের জীবাণু সংক্রমণ প্রতিরোধ এবং সারাতে সাহায্য করে। মাউথ আলসার সারাতে দিনে দুইবার করে হলুদের পেস্ট ব্যবহার করুন। এতে অল্পদিনের মধ্যেই মিলবে মুক্তি কিছুদিনের মধ্যেই সমস্যার সমাধান হবে। 2. লবণ-পানির ব্যবহার এক টেবিল চামচ লবণ ও আধা গ্লাস হালকা গরম পানি নিন। এবার পানির সঙ্গে লবণ মিশিয়ে কুলকুচি করুন বা গার্গল করুন। লবণ-পানি শেষ হয়ে গেলে সাধারণ পানিতে আরেকবার কুলকুচি করে নিন। মুখের ভেতরে ছাল উঠে গেলে বেশিরভাগ মানুষই প্রথমে অবহেলা করেন। এর

ফলে সংক্রমণ দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে অনেকটা জায়গাজুড়ে। লবণ-পানি অ্যান্টিসেপ্টিকের কাজ করে তাই এটি মাউথ আলসার বাড়তে দেয় না। এতে কষ্টও কমে অনেকটা। উপকার পেতে দিনে দুই-তিনবার লবণ-পানি ব্যবহার করুন। 3. হারবাল টুথপেস্ট যেকোনো ভালো ব্র্যান্ডের হারবাল টুথপেস্ট এবং একটি কিউ টিপ বা কটন বাড নিন। সকালে ঘুম থেকে উঠে এবং রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে কটন

বাডে টুথপেস্ট নিয়ে মুখের ভিতরে যেখানে ছাল উঠেছে, সেখানে ব্যবহার করুন। অন্তত পাঁচ মিনিট রেখে কুলকুচি করে নিতে হবে। টুথপেস্ট ব্যবহারের পর সামান্য জ্বালা করতে পারে, এতে ভয় পাবেন না। কারণ কিছুক্ষণ পরই জ্বালাভাব কমে যাবে। হারবাল টুথপেস্টে অ্যান্টি-মাইক্রোব্যাক্টেরিয়াল প্রপারটিস থাকে তাই মাউথ আলসার সারাতে টুথপেস্ট খুব ভালো ঘরোয়া টোটকা হিসেবে কাজ করে। দিনে দুইবার করে কটন বাড দিয়ে টুথপেস্ট লাগালে সপ্তাহখানেকের মধ্যেই আরাম পাবেন।

About Susmita Roy

Check Also

হেঁচকি বন্ধে কাজে লাগান ঘরোয়া এই ৩ টোটকায়!

হেঁচকি বন্ধে কাজে লাগান ঘরোয়া এই ৩ টোটকায়!

বন্ধুদের সঙ্গে রেস্তোরাঁয় খেতে গেলেন, আর তখনই উঠেছে হেঁচকি! এদিকে খাবারের টেবিলে সকলে আপনাকে নিয়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.