অন্ধ হয়েও বেকারদের জন্য খুলেছেন কোম্পানি, শ্রীকান্তের জীবন কাহিনী হার মানাবে সিনেমার গল্পকে

আমাদের চারপাশে এমন অনেক মানুষ থাকেন যারা জন্ম থেকেই নানা অক্ষমতা নিয়ে পৃথিবীতে আসেন। তাদের মধ্যে অন্যতম হলেন শ্রীকান্ত বোল্লা। তিনি অন্ধ্রপ্রদেশের মাছলিপত্তনমের সীতারামপুরমে জন্মেছিলেন। তার বাবা-মা পেশায় কৃষক ছিলেন। কৃষিকাজই তাদের উপার্জনের

একমাত্র পথ ছিল। অভাবের সংসারে এমন অক্ষম সন্তানকে বড় করে তোলা সত্যিই সংগ্রামের। সেই সময়ে তাদের অনেকে অনেকধরনের পরামর্শ দিয়েছিলেন। তবে তারা কারোর কথায় কান না দিয়ে নিজের ছেলেকে নিজেদের মতো করে বড় করে তোলার সিদ্ধান্ত নেন। বড় হয়ে শ্রীকান্ত প্রমাণ করে দেয় তার বাবা-মায়ের সিদ্ধান্ত ভুল ছিল না।ছোট থেকেই পড়াশোনায় ভালো ছিল শ্রীকান্ত। মাধ্যমিকে দুর্দান্ত ফল করেছিল

এই কৃষক পরিবারের ছেলে। এরপরে উচ্চ-মাধ্যমিকের জন্য বিজ্ঞান নিয়ে পড়াশোনা করতে চেয়েছিলেন শ্রীকান্ত, তবে তখন তাকে নাকচ করে দেওয়া হয় তার অক্ষমতার জন্য। কিন্তু তিনি সেইসময় এর বিরুদ্ধে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। আদালত সম্মতিও দিয়েছিল। কিন্তু আদালতের তরফ থেকে জানানো হয়েছিল সে পড়াশোনা করবে সম্পূর্ণ নিজের দায়িত্বে। বিজ্ঞান নিয়ে পড়াশোনার জন্য তার কোন ক্ষতি হলে স্কুল কর্তৃপক্ষ

কোনভাবেই দায়ী থাকবেনা। সব শর্ত মেনে নিয়ে পড়াশোনা করেছিল শ্রীকান্ত। পরবর্তীকালে শ্রীকান্ত বোল্লা ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজিতে তিনি পড়াশোনার জন্য সুযোগ পান। কিন্তু তার শারীরিক অক্ষমতার জন্য তাকে বাতিল করে দেওয়া হয় ইনস্টিটিউটের তরফ থেকে। তবে এই ঘটনাও তাকে দমিয়ে রাখতে পারেনি। পরে আমেরিকার ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজিতে প্রথম আন্তর্জাতিক অন্ধ

ছাত্র হিসেবে পড়াশোনা করেন তিনি। পড়াশোনা শেষে বেশ কয়েক বছর আমেরিকাতেই কর্পোরেটে কাজ করেছিলেন তিনি। পরবর্তীকালে দেশের জন্য কিছু করার ইচ্ছা থেকে তিনি ফিরে আসেন নতুন কিছু শুরু করার আশায়। সেইসময়ে নতুন কিছু শুরু করার জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ অর্থ তার কাছে ছিল না। ঠিক সেই মুহুর্তে তার দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন দেশের অন্যতম ধনী ব্যবসায়ী ও সহৃদয় ব্যক্তি রতন টাটা। তার

সাহায্যের উপর ভর করেই শ্রীকান্ত ‘বোলান্ট’ শিল্প শুরু করেছিলেন।‘বোলান্ট’ শিল্পে পুরনো প্লাস্টিককে ব্যবহার করে ক্রাফট পেপার বানানো হয়। মাত্র কয়েক বছরের মধ্যেই শ্রীকান্তের পরিশ্রম এবং বুদ্ধির জোরেই তার স্বপ্নপূরণ হয়। এরপর তিনি তার এই সাম্রাজ্যে তার মত শারীরিকভাবে অক্ষম হয়েও যারা নতুন কিছু করতে চায় তাদের কাজ দিতে থাকেন। জানা গিয়েছে, খুব শীঘ্রই শ্রীকান্ত বোল্লের জীবন

সংগ্রামকে কেন্দ্র করেই তৈরি হবে বায়োপিক। কিছু করার ইচ্ছে থেকে এতদূর পৌঁছনো সহজ ব্যাপার নয়। বহু মানুষের কাছে বর্তমানে সে অনুপ্রেরণা হয়ে উঠেছে। জানা গিয়েছে, বলিউডের পর্দায় শ্রীকান্ত বোল্লের চরিত্রে অভিনয় করবেন বলিউড ইন্ডাস্ট্রির অন্যতম জনপ্রিয় প্রথম সারির অভিনেতা রাজকুমার রাও। শ্রীকান্তর লড়ে যাওয়ার গল্পকে সকলের কাছে পৌঁছে দিতেই এই উদ্যোগ, যা প্রশংসনীয়।

About Susmita Roy

Check Also

মাত্র ২০০০ টাকায় মেশিন কিনে শুরু করুন এই দারুন লাভের ব্যবসা

মাত্র ২০০০ টাকায় মেশিন কিনে শুরু করুন এই দারুন লাভের ব্যবসা

যে কোন চাকরির থেকে ব্যবসা করে কিন্তু অনেকটাই বেশি উপার্জন করা যাচ্ছে।এমতাবস্থায় আজকের এই বিশেষ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *