মাত্র ২০০০ টাকায় মেশিন কিনে শুরু করুন এই দারুন লাভের ব্যবসা

যে কোন চাকরির থেকে ব্যবসা করে কিন্তু অনেকটাই বেশি উপার্জন করা যাচ্ছে।এমতাবস্থায় আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা আপনাদের সাথে এমন একটি ব্যবসার কথা আলোচনা করতে চলেছি যেখানে আপনারা দেখতে পারবেন কিভাবে কম খরচে লাভদায়ক ব্যবসা

শুরু করা যেতে পারে। প্রথমেই জানি রাখি মাত্র ২০০০ টাকা দিয়ে আপনারা এই ব্যবসা শুরু করতে পারবেন। চাইলে নিজের বাড়ির একটি অংশ ব্যবহার করেই ব্যবসার কাজ করতে পারেন।এই ব্যবসাটি হল হাঁস বা মুরগি থেকে ডিম ফোটানোর ব্যবসা অর্থাৎ ইনকিউবেটর মেশিন এর ব্যবসা। এই মেশিনের সাহায্যে আপনারা মাত্র ২ হাজার টাকাতেই কিন্তু নিজেদের ব্যবসা চালু করে দিতে পারেন।। সবথেকে ভালো ব্যাপার

যেখান থেকে আপনারা মেশিন কিনবেন সেই কোম্পানি আপনাদেরকে সমস্ত বাজার যত করার জায়গা বলে দেবে অথবা নিজেরাই সমস্ত জিনিস কিনে নেবে।আমরা সকলেই জানি আজকাল দেশের বাজারে পোল্ট্রি বা ফার্মিং এর ব্যবসা অত্যন্ত জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। সেই তুলনায় যদি আপনারা ইনকিউবেটর মেশিন কিনে বাড়িতে তা বসিয়ে নিজেদের কাজ শুরু করতে পারেন তাহলে তা যে অনেকটাই লাফদায়ক হবে সে

কথা বলাই যায়।। মোটামুটি আপনার যদি প্রতি জিনিস হিসেবে দশ থেকে পনেরো টাকা খরচ হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে কিন্তু আপনি এই ব্যবসা করে মোটামুটি ৩০ থেকে ৩২ টাকা পর্যন্ত উপার্জন করতে পারবেন। কলকাতা সহ রাজ্যের বেশ কিছু জায়গায় এই মেশিন কিন্তু আপনি নির্দিষ্ট দামের মধ্যে কিনতে পেয়ে যাবেন। প্রোডাক্ট বাজারজাত করার জন্য আপনারা চাইলে স্থানীয়

এলাকায় সহজেই খোঁজ নিতে পারেন। ইন কিউবেটর মেশিনের কিন্তু নানান ধরনের ক্যাপাসিটি হয়ে থাকে। মেশিনের ক্যাপাসিটি অনুযায়ী সাধারণত দাম নির্ধারণ করা হয়। মোটামুটি ১০০ ক্যাপাসিটির মেশিনের দাম পড়বে ২০০০ টাকা। যতদিন পর্যন্ত না আপনার ব্যবসা থেকে ভালো উপার্জন হচ্ছে ততদিন পর্যন্ত কিন্তু আপনি এই মেশিন কিনেই কাজ চালাতে পারেন। ২০০ ক্যাপাসিটির মেশিনের দাম পড়বে ৩০০০ টাকা।এটি

কিন্তু সম্পূর্ণ অটোমেটিক মেশিন। অনেক জায়গাতে কাস্টমারের চাহিদা অনুযায়ী ও মেশিন বানিয়ে দেওয়া হয়ে থাকে। যদি আপনার মূলধনের পরিমাণ বেশি হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে আপনার অবশ্যই সেগুলি ট্রাই করে দেখতে পারেন। যদি মূলধনের পরিমাণ কম হয় সে ক্ষেত্রে কিন্তু

আপনাদের জন্য ২০০০ টাকায় অর্থাৎ ১০০ ক্যাপাসিটির যে মেশিনটি রয়েছে সেটি একেবারেই যথাযোগ্য। অন্যান্য ব্যবসার তুলনায় এই ব্যবসাটি সব থেকে বেশি লাভ দায়ক কারণ এটি খাদক প্রাণীর ব্যবসা। আর সময় যে রকমই হোক না কেন খাদক প্রাণীর চাহিদা কিন্তু কখনোই কম হয়ে যায় না।
বি.দ্র. প্রতিবেদনটি সচেতনতার উদ্দেশ্যে লেখা হয়েছে। কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে অবশ্যই কোন বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।

About Susmita Roy

Check Also

জীবনে খুব বেশি সৎ হলেই ঘোর বিপদে পড়বেন!

জীবনে খুব বেশি সৎ হলেই ঘোর বিপদে পড়বেন!

চাণক্যের বাণী যুক্তিসঙ্গত এবং আমাদের জীবনে চরমভাবে কার্যকর তবে প্রশ্ন আসতেই পারে এই চাণক্য কে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *