পেটের অতিরিক্ত মেদ কমিয়ে ফেলুন এই ৭টি সিক্রেট উপায়ে

দীর্ঘ সময় অফিসে বসে কাজ করা, দৈহিক পরিশ্রম কম হওয়ার কারণে পেটে মেদ জমতে থাকে। ফলে শরীরচর্চার সময় যারা বের করতে পারছেন না,

তারা প্রতিদিনের কিছু সহজ অভ্যাসের মাধ্যমে কমিয়ে ফেলতে পারেন শরীরের অতিরিক্ত মেদ। দীর্ঘ সময় অফিসে বসে কাজ করা, দৈহিক পরিশ্রম কম হওয়ার কারণে পেটে মেদ জমতে থাকে। ফলে আলাদা করে শরীরচর্চার সময় যাঁরা বের করতে পারছেন না, তাঁরা প্রতিদিনের কিছু

সহজ অভ্যাসের মাধ্যমে কমিয়ে ফেলতে পারেন শরীরের অতিরিক্ত মেদ। এমনকী মাত্র ৭ দিনেও বেশ কিছুটা কমানো সম্ভব পেটের মেদ। যে সব খাবার শরীরের মেদ বাড়ায় যেমন অ্যালকোহল, চিনি, ফাস্টফুড ইত্যাদি এড়িয়ে মাছ, মুরগির মাংস ও সবজি খাওয়ার অভ্যাস করতে হবে।

১। দিনের শুরুটা করুন পাতিলেবু ও উষ্ণ গরম জল দিয়ে। প্রতিদিন সকালবেলা নিয়ম করে ১ গ্লাস লেবু গরম জল খান। সকালের ব্রেকফাস্টের আগে কোনো একটা ফল বা অনেকটা জল খান৷ দিনে প্রচুর পরিমাণ জল খান।
২। সাদা ভাত কম খান। সাদা চালের ভাতের বদলে প্রতিদিনের ডায়েটে খান গমের রুটি, ওটস, ডালিয়া ইত্যাদি।

৩। মিষ্টি বা মিষ্টি জাতীয় খাবার, কোল্ড ড্রিঙ্কস এবং তেলে ভাজা স্ন্যাক্স থেকে দূরে থাকুন। চিকিৎসকদের মতে, এই জাতীয় খাবারগুলো আপনার শরীরের বিভিন্ন অংশে, বিশেষত পেট ও পায়ের থাইতে খুব দ্রুত চর্বি জমিয়ে ফেলে। তাই এই খাবারগুলি খাওয়ার পরিবর্তে ফল খান। ৪। প্রচুর পরিমাণে শাকসবজি এবং ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার খান।

৫। তাড়াতাড়ি ওজন কমানোর জন্য আদা থেতো করে উষ্ণ গরম জলে ভালো করে ফোটান। তার মধ্যে সামান্য পরিমাণে জিরে গুঁড়ো দিন। দুপুরে অথবা রাতে শুতে যাওয়ার আগে খান। তার পর পার্থক্যটা দেখুন।
৬। ঘুম ভালো হলে শরীরে মেদ কম জমে এবং জমা মেদও ঝরে যায়।

৭। সর্বক্ষণ অফিসে বসে কাজ করার ফলে অনেক সময় পেটে মেদ জমে। তাই চেষ্টা করুন, আগের বাসস্টপে নেমে বাকি রাস্তা হেঁটে যাওয়ার, সিঁড়ি দিয়ে উঠুন। এর ফলে শরীর অনেকটা সক্রিয় হয়। মেদ জমার সুযোগই পাবে না।

About Susmita Roy

Check Also

হৃদরোগ ছাড়াও আরো যেসব কারণে বুকে ব্যথা হতে পারে

হৃদরোগ ছাড়াও আরো যেসব কারণে বুকে ব্যথা হতে পারে

হৃদরোগ আজকাল বয়স্কদের ছাড়াও অপ্রাপ্ত বয়স্কদের হয়ে থাকে। দিন দিন এই রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃতের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *