চাকরির বায়োডেটায় এই ৫টি ভুল মোটেও করবেন না

ওয়েব ডেক্স: চাকরি খোঁজার আগে ভালো বায়োডেটা বানানো খুবই জরুরী। আর বায়োডেটা পাঠানেরা ক্ষেত্রে কয়েকটি জরুরী বিষয়ে নজর দেওয়া অবশ্যক প্রত্যেক চাকরি প্রার্থীকে। কারন বায়োডেটায় ভুল থাকলে চাকরি আপনার হাত ছাড়া হয়ে যেতে পারে। বায়োডেটায় আমরা সাধারণত যে ছোট ছোট ভুলগুলো করে থাকি তা নিয়ে আজকে আমাদের এই আয়োজন। দেখে নিন কী কী ভুল সাধারণত করে থাকি: ১। বায়োডেটাতে প্রার্থী যদি নিজের কর্মদক্ষতা ঠিকমত না লেখে তাহলে কর্তৃপক্ষ তাৎক্ষণাৎ সেই বায়োডেটা বাতিল করে দিতে পারেন।

কর্মদক্ষতা ভালো করে যাচাই করে তবেই তো একটি কোম্পানীর প্রার্থীকে চাকরিতে নিয়োগ দান করে থাকে। তাই বায়োডেটাতে পরিস্কার করে নিজের কর্মদক্ষতা উল্লেখ করবেন। কোন কোন প্রতিষ্ঠানে অতীতে কাজ করেছেন, কী কী দ্বায়িত্ব পালন করেছেন, সেগুলো অবশ্যই বায়োডেটাতে উল্লেখ করতে হবে। নইলে চাকরি আপনার হাত ফসকে বেরিয়ে যেতে পারে ২। শিক্ষাগত যোগ্যতার কথা স্পষ্ট করে লিখতে হবে। অনেক চাকরি প্রার্থী বায়োডেটায় ঠিকঠাকমত নিজের শিক্ষাগত যোগ্যতার কথা উল্লেখ করে থাকে না। দায়সারা লিখে দেন।

এ ধরণের বায়োডেটা ম্যানেজমেন্ট হাতে পেলে সেটি নিশ্চিত বাতিল করে দেবেন। সুতারাং, নিজের ভবিষ্যৎ সুরক্ষিত করতে অবশ্যই একটি ভালো চাকরি জোড়ার করতে হয়ে যে বায়োডেটা পাঠাবেন একজন প্রার্থী, সেখানে যেন পরিস্কার করে লেখা থাকে প্রার্থীর শিক্ষগত যোগ্যতা। যেমন: স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ে নাম, বিশেষ কোন কাজে প্রশিক্ষণ আছে কিনা ইত্যাদি। তবে শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে ভুলেও মিথ্যা তথ্য উপস্থাপন করবেন না। ৩। নিজের কর্মদক্ষতা নিয়ে অতিরঞ্চিত কোন তথ্য উল্লেখ করতে যাবেন না। বিভিন্ন বিষয়ে পরর্দশিতার কথা অনেক

সময় উল্লেখ করে থাকে প্রার্থীরা। আর এমন বায়োডেট চাকরি পাবার অন্যতম অন্তরায়। একজন ব্যক্তির বিভিন্ন বিষয়ে পারদশির্তার কথা উল্লেখ করলে ম্যানেজমেন্ট দ্বিধায় ভুগতে থাকে। ৪। এখন হলো হোয়াটস অ্যাপ, ফেসবুক এর যুগ। খুব অল্প কথায় নিজের ভাব প্রকাশ করছে মানুষ। আর এটাই কিন্তু সবার অভ্যাসে পরিণত হয়ে যাচ্ছে। বায়োডেটায় নিজের সম্পর্কে তথ্য লেখার ক্ষেত্রে সাবধানতা অবশ্যই অবলম্ব করা উচিৎ। কখনো সংক্ষিপ্ত আকারে লেখা উচিৎ নয় এবং যেন তেন শব্দ ব্যবহার করা হতে বিরত থাকতে হবে।

৫। বায়োডেটাতে শুদ্ধ বানান রাখা বাঞ্চনীয়। বানান ভুল থাকলে প্রার্থী সম্পর্কে বাজে ধারনা করে বসে ম্যানেজমেন্ট। তাই সবসময়ই শুদ্ধ বানানে লিখতে হবে। নিজরে সম্পর্কে বায়োডেটা লেখার পর কয়েকবার তা রিভিশন করা উচিৎ। যদি ভুল থাকে তা দ্রুত সংশোধন করে নিতে হবে। তথ্য: ওয়েব ডেক্স।

About Susmita Roy

Check Also

সন্তানকে পড়াশোনায় আগ্রহী করে তোলার কিছু সহজ উপায়!

সন্তানকে পড়াশোনায় আগ্রহী করে তোলার কিছু সহজ উপায়!

আজকাল ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইসের যুগে বাচ্চারা মোবাইল,ল্যাপটপ গেইমস ইত্যাদি নিয়েই বেশি ব্যস্ত থাকতে পছন্দ করে। গেইমের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.