হঠাত্‍ পুড়ে গেলে জ্বালা-পোড়া কমাতে দ্রুত যা করবেন!

আমাদের সারাদিনে অনেকবার চুলা, ওভেন, টোস্টার, আয়রনসহ বিভিন্ন তাপে-আগুনে কাজ করতে হয়। কাজ করার সময় অসাবধা- নতায় আমাদের ছোট ছোট দুঘটনাও হতে পারে। এরমধ্যে অন্যতম হাত পোড়া। হঠাত্ হাত-পা পুড়ে গেলে, ছ্যাকা লাগলে, আতঙ্কিত না

হয়ে, জ্বালা-পোড়া কমাতে ঘরোয়া কিছু পদ্ধতি। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক সে ঘরোয়া টিপস- 1. মধু এন্টি ব্যাকটেরিয়াল হওয়ায় ক্ষত স্থানে মধু ব্যবহার করুন। অল্প সময়েই জ্বালা কমে শীতল হবে। ২. লবণ লবণ ফোস্কা সারাতে ও দ্রুত পুড়ে যাওয়া সারিয়ে তুলতে কাজ করে। কোথাও পুড়ে গেলে সঙ্গে সঙ্গে একটু লবণ মেখে নিন, ফোস্কা পড়বেনা। ৩. দুধ দুধের প্রোটিন ও ফ্যাট দ্রুত ঠাণ্ডা

অনুভুতি দেয়। পোড়া স্থান মাত্র ১৫ মিনিট ঠাণ্ডা দুধের ভেতর রাখুন। ৪. মিন্ট পেস্ট কোথাও পুড়ে গেলে প্রথমে পরিষ্কার পানি দিয়ে ক্ষতস্থান ধুয়ে নিন। এবার পরিষ্কার কাপড় বা টিস্যু দিয়ে মুছে পুরু করে মিন্ট পেস্ট লাগিয়ে নিন। ৫. অ্যালোভেরা জ্বালা কমাতে ও দাগ সারিয়ে তুলতে অ্যালোভেরার জেল ব্যবহার করুন। এই সব ব্যবস্থাই কিন্তু খুব সামান্য পুড়ে গেলে নিতে পারেন। তবে যদি বেশি পুড়ে

যায় বা খুব বেশি জ্বালা করে অবশ্যই বিশেষজ্ঞ চিকিত্সকের পরামর্শ নিন।এছাড়াও প্রথমেই নিজের ও পরিবারের নিরাপত্তার বিষয়টি খেয়াল রাখবেন। রান্না করার সময় চুল খোলা রাখবেন না। ফোনে কথা বলা বা অন্য কোনো কাজ করতে হলে আগে চুলা বন্ধ করে নিন। শিশুদের চুলার কাছে আসতে দেবেন না। জরুরি যোগাযোগের জন্য পরিবারের কারো ও ফায়ার সার্ভিসের নাম্বার একটি কাগজে লিখে রাখুন।

About Susmita Roy

Check Also

বিরক্তিকর খুসখুসে কাশি সারানোর ঘরোয়া উপায়

বিরক্তিকর খুসখুসে কাশি সারানোর ঘরোয়া উপায়

শীতে কমবেশি সবাই সর্দি-কাশির সমস্যায় ভোগেন। জ্বর-সর্দি যদিও দ্রুত সেরে যায়, তবে কাশি সহজে সারে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *