কলার সাথে দই খান আর দেখুন ফলাফল!

পালংও উপকারী, আবার পাতিলেবু। জানেন কি এই দুইয়ের যুগলবন্দিতে কী হবে? কেন দইয়ের সঙ্গে কলা খাবেন? বা ডিমের সঙ্গে চিজ? 1. কলার সঙ্গে দই খান: এটা আপনার ঠিকঠাক ব্রেকফাস্ট হতে পারে। কলার মধ্যে রয়েছে পটাসিয়াম। দইয়ে আছে হাইপ্রোটিন।

তাই কলা ও দই একসঙ্গে খেলে পেশি সুগঠিত হয়। অ্যামাইনো অ্যাসিডের ঘাটতি পূরণ করে। 2. পালং শাকের সঙ্গে লেবু: পালং শাকের মধ্যে রয়েছে পর্যাপ্ত আয়রন। ফলে যাঁরা রক্তাল্পতায় ভুগছেন, তাঁদের খাদ্যতালিকায় পালং শাক থাকাটা বাঞ্ছনীয়। এর সঙ্গে যদি পাতিলেবু মিশিয়ে

নিতে পারেন, তো কথাই নেই। তাতে পালং শাকের আয়রন আরও সহজে শরীর শোষণ করতে পারে। 3. স্ট্রবেরির সঙ্গে পালংশাক: স্ট্রবেরিতে রয়েছে ভিটামিন সি। পালংশাকে আয়রন। আয়রনের অভাবে ক্লান্তি, পেশিদুর্বলতা দেখা দেয়। গোছা গোছা চুল পড়ে। তাই বিশেষত মেয়েদের ভিটামিন সি-র সঙ্গে আয়রন সমৃদ্ধ খাবার বেশি করে খাওয়া উচিত। স্ট্রবেরির সঙ্গে পালংশাক যথাযথ কম্বিনেশন। 4. টোম্যাটোর সঙ্গে অলিভ

অয়েল: টোম্যাটোর মধ্যে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট লাইকোপেন ও ক্যারোটিনয়েড। টোম্যাটোর পুরো গুণ পেতে হলে, এর সঙ্গে অলিভ অয়েল মেশালে ভালো। এতে কোলেস্টেরল ও ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণ হবে। ক্যানসার প্রতিরোধেও এর তুলনা নেই। 5. মাছের সঙ্গে কারি মশলা: মাছ খেতে হলে একসঙ্গে হলুদ, জিরে ও ধনে বেটে রান্না করুন। তাতে হার্টের পক্ষে উপকারী ওমেগা থ্রি-র উপকার পাবেন। মাছে রয়েছে ডিএইচএ

ও ইপিএ ফ্যাট, যা ক্যানসারের ঝুঁকি কমায়। 6. বেরি খেলে মিক্সড বেরি খান: মানে ব্ল্যাকবেরি, স্ট্রবেরি সব একসঙ্গে খান। কারণ অনেক বেশি পুষ্টিদায়ক। ডিমের সঙ্গে চিজ: হাড়ের গঠন মজবুত করতে ক্যালসিয়াম জরুরি। এই ক্যালসিয়াম অ্যাবজর্ভ করার জন্য লাগে ভিটামিন ডি। খুব কম খাবারেই ভিটামিন ডি রয়েছে। তার মধ্যে একটি ডিমের কুসুম। ডিমের ওমলেট খেলে পরিমাণ মতো চিজ মিশিয়ে নিন। তাতে ভালো ফল পাবেন।

About Susmita Roy

Check Also

হার্ট অ্যাটাকের আগে বুকের কোন পাশে ও কেমন ব্যথা হয় জানেন

হার্ট অ্যাটাকের আগে বুকের কোন পাশে ও কেমন ব্যথা হয় জানেন?

শীত আসতেই বেড়ে যায় হার্ট অ্যাটাকের ঘটনা। শুধু যে বয়স্কদের ক্ষেত্রেই নয়, কম বয়সীদেরও হঠাৎ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *