ত্বক ফর্সা করার অত্যন্ত কার্যকরী ৫টি প্রাকৃতিক ফেসপ্যাক

ত্বকের উজ্জ্বলতার জন্য অনেকেই বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ক্রিম বাজার থেকে কিনে ব্যবহার করে থাকেন। তবে বাজারের সেসব ক্রিমে চড়া রাসায়নিক পদার্থ থাকায় ক্ষতিগ্রস্ত হয় ত্বক।

সুতরাং আপনি যদি সত্যিই ত্বকে উজ্জ্বল্য আনতে চান তাহলে কিছু ঘরোয়া ফেসপ্যাক ব্যবহার করে দেখতে পারেন। কারণ এই ধরনের প্যাকে প্রাকৃতিক ব্লিচিং উপকরণ থাকে। যা ত্বককে ফর্সা দেখাতে সাহায্য করে। ঘরোয়া উপকরণ দিয়ে তৈরি বলে, এই ধরনের ফেসপ্যাকের কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও নেই। জেনে নিন, ত্বকের উজ্জলতায় ঘরোয়া কিছু ফেসপ্যাক। ১. মধুর ফেসপ্যাক: এক মধু ই যথেষ্ট। মুখে ও গলায় ভালো

করে মধু লাগান। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিন। চাইলে মধুর সঙ্গে ১ চা চামচ কমলালেবুর রস মিশিয়েও লাগাতে পারেন। ২. হলুদের ফেসপ্যাক: ১ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো, ২ চা চামচ দইয়ের সঙ্গে মিশিয়ে লাগান। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। হলদেটে ভাব না গেলে শুকনো আটা ভেজে মুখে স্ক্রাব করুন। মাসে ২ বার করুন। ৩. লেবুর ফেসপ্যাক: ১টা লেবুর রস, তাতে ১ টেবিল চামচ পানি ঝরানো

দই, ভালো করে একসঙ্গে মেশান। এবার মুখ ও গলায় পুরু করে এই পেস্টটি লাগান। শুকনো হয়ে আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে একবার লাগালেই যথেষ্ট। ৪. গমের ফেসপ্যাক: একমুঠো গম গুঁড়ো করে নিন। এতে ২ টেবিলচামচ গোলাপজল মেশান। এবার এই পেস্টটি মুখে ও গলায় সমানভাবে লাগান। ১৫ মিনিট পারে হাল্কা গরম দুধ দিয়ে ধুয়ে গোলাপজল দিয়ে মুখ

মুছে নিন। ৫. ওটসের ফেসপ্যাক: ১ টেবিল চামচ ওটসের সঙ্গে ২ টেবিল চামচ গোলাপজল মেশান। ভালো করে চটকে মেখে নিন। এবার এই মিশ্রনটা গলায় ও মুখে ভালো করে লাগান। এবার ক্লকওয়াইজ হাত ঘুরিয়ে মুখে ভালো করে মালিশ করুন। মালিশ হয়ে গেলে ১৫-২০ মিনিট শুকতে দিন। শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা দুধ দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে নিন। এছাড়াও আপনি চাইলে টমেটোর ফেসপ্যাক, দই-এর ফেসপ্যাক অথবা কমলার খোসার ঘরোয়া ফেসপ্যাক ব্যবহার করে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে পারেন।

About Susmita Roy

Check Also

শিশুর দাঁত ভালো রাখবে যে খাবার

শিশুর দাঁত ভালো রাখবে যে খাবার

দাঁত থাকতে দাঁতের মর্যাদা নেই বলে যে একটা কথা আছে, এটা সবার ক্ষেত্রেই খাটে। তবে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.