জনপ্রিয় কার্টুন সিরিজ মটু পাটলুর সবগুলো ক্যারেক্টার ভয়েস দেন সৌরভ চক্রবর্তী একাই!

আপনাদের প্রত্যেকের বাড়িতে ছোট ভাই বোন আছে। আর তারা কার্টুনের প্রতি হয়তো অনেকটাই আসক্ত যে তাদের যন্ত্রণায় আপনারও সেই কার্টুন গুলো দেখতে হয়। কেননা তারা যখন টিভির সামনে বসে থাকবে তখন কার্টুন ছড়া আর অন্য কোন চ্যানেল দেখতেই দেবেনা। আর আমার তো মনে হয় আপনাদের সেই কার্টুন গুলো দেখতে ভালো লাগে। আর এই কার্টুন

গুলোর মধ্যে অন্যতম কার্টুন সিরিজ হচ্ছে মটু পাতলু।কার্টুন গুলো তৈরি করার মধ্যে অনেকগুলো ধাপ অতিক্রম করতে হয়। আর এগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে ভয়েস। আর আপনারা জানেন কি সে কার্টুনগুলোর ভয়েস কে বা কারা দিয়ে থাকে। আর তাদের নিয়েই সাজানো হয়েছে আজকে আমাদের এই প্রতিবেদন, শেষ পর্যন্ত পড়ুন। আমরা হয়তো অনেকেই জানি যে,মোটু পাতলু হলো ভারতীয় অ্যানিমেটেড টেলিভিশন কার্টুন সিরিজ, যা নিরাজ বিক্রম লিখেছেন। এই সিরিজ নিকেলোডিয়নে প্রচার করা হয়। যেটি কমিকস সিরিজ

লটপটের অনুরূপ।এটি ১৬ই অক্টোবর ২০১২ থেকে শুরু হয়, যার প্রথম পর্ব ছিল “জন বনেগা ডন”। এটি বাচ্চাদের খুব প্রিয় একটি প্রোগ্রাম। এই কার্টুনের দুটি প্রধান চরিত্র হলো মোটু ও পাতলু যারা ফুরফুরি নগরে থাকে। এদের সাথে আরো বিভিন্ন চরিত্রে রয়েছেন আরো বেশ কয়েকজন। যারা প্রত্যেকটি পর্বে তাদের সাথে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করে থাকে। কার্টুনের প্রতিটি দৃশ্য এবং গল্প এই দুজনকে কেন্দ্র করে পরিচালিত হয়। “জন দ্য ডন”-এর অসামাজিক কার্যকলাপে দু’জন বন্ধু মোটু এবং পাতলু হস্তক্ষেপ করে। এই

কার্টুনের কাল্পনিক শহরের নাম ফুরফুরি নগর। সেখানে একজন চা বিক্রেতা থাকেন যিনি মোটুর জন্য সিঙ্গারা তৈরি করেন। তবে পরবর্তী সিরিজে তারা মডার্ন সিটি নামে আরও একটি কাল্পনিক শহরে বাস করেন। আজকাল মোটু পাতলু এবং তাদের বন্ধুরা ইউরোপে ভ্রমণ করছেন।এই কার্টুন সিরিজটি দিন দিন পরিবর্তন হয়ে নতুন নতুন পর্ব তৈরি হয়ে আসছে। সিরিজটির ভিত্তি তৈরি করা হয়েছে ভারতের ফুরফুরি নগর শহরে। ফুরফুরি নগর একটি শান্তিপূর্ণ শহর তবু দৃষ্টিনন্দন। এটি ভারতের একটি ছোট শহর৷ এই শহরে মহৎ এবং দুর্বল,

কয়েকটি দোকান, একটি বিশাল বাজার এলাকা, একটি বাস ডিপো, একতলা ঘর, মন্দির এবং কয়েকটি বিনোদনমূলক স্থানের একটি গুচ্ছ দেখা যায়। এই শহরে ব্যাংক, গহনার দোকান, ফুরফুরি নগর থানা, চিঙ্গামের বাড়ি, বক্সারের বাড়ি, মোটু পাতলুর বাড়ি,চাওয়ালার স্টল, ফুরফুরি নগর কেন্দ্রীয় কারাগার, ফুরফুরি নগর বাস স্ট্যান্ড ,জনের ডেন, ডাঃ ঝটকার পরীক্ষাগার এবং বাড়ি এবং ঘাসিটারামের বাড়ি আছে। । আজকাল তারা ইউরোপ ভ্রমণে আছে।তারা সেখানেই ইউরোপের বিভিন্ন শহর ভ্রমণ করার পর্ব তৈরি করেছে।কার্টুনটি

নিকেলোডিয়ন ইন্ডিয়ায় হিন্দি, তামিল, তেলেগু, কন্নড়, মালয়ালম, বাংলা, গুজরাটি ও মারাঠি ভাষায় সম্প্রচারিত হয়। এছাড়া, কার্টুনটি বাংলাদেশের মাছরাঙা টিভিতেও ভারতের কালার্স বাংলায় বাংলা ভাষায় ডাবিং করে সম্প্রচার করে।বর্তমানে পুরো ভারতবর্ষের বিভিন্ন কার্টুন সিরিজগুলোর মধ্যে অন্যতম এবং জনপ্রিয় সিরিজ হচ্ছে এই মটু পাতলু সিরিজটি। আজকে আমরা জানবো এই কার্টুন সিরিজটি বাংলায় কে ডাবিং করে থাকে। আপনি হয়তো শুনলে বিশ্বাস করবেন না যে পুরো মটু পাতলু কার্টুন এর সম্পূর্ণ ভয়েস সৌরভ চক্রবর্তী একাই

দিয়ে থাকেন। এ কার্টুন সিরিজটিতে বিশেষ বিশেষ প্রত্যেকটি চরিত্রের বাংলা ডাবিং করে থাকেন উনি একাই। আপনি শুনলেও বিশ্বাস করতে পারবেন না যে একজন মানুষ কিভাবে এত জন চরিত্রের আলাদা আলাদা ভয়েস দিয়ে থাকেন। শুধু তাই নয় এছাড়াও আরও বিভিন্ন কার্টুনের ভয়েস তিনি ডাবিং করে থাকেন।

About Susmita Roy

Check Also

মাত্র ১ মাসে ৩১৭ কেজি থেকে দু’শো কেজির বেশি ওজন কমিয়ে এখন ঝরঝরে তরুণী!

মাত্র ১ মাসে ৩১৭ কেজি থেকে দু’শো কেজির বেশি ওজন কমিয়ে এখন ঝরঝরে তরুণী!

আমেরিকার মিসিসিপির বাসিন্দা ক্রিস্টিনা ফিলিপসের যখন বাইশ বছর বয়স, তখন তাঁর ওজন সাতশো পাউন্ড বা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *