দ্রুত হেঁচকি বন্ধ করুন এই কয়েকটি নিয়ম মেনে

হেঁচকি (Hiccups) শব্দটির সঙ্গেই জড়িয়ে আছে অস্বস্থি। এক্ষেত্রে খাওয়ার পরই মূলত হেঁচকি ওঠে। নানা কারণে হেঁচকি উঠতে পারে। তবে বিশেষজ্ঞরা মনে করে, দ্রুত খাবার খাওয়া,

কোল্ডড্রিংকস পান করা ইত্যাদি কারণে এই সমস্যা বেশি হয়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই হেঁচকির সমস্যা মিটে যায়। তবে অনেকের একনাগাড়ে হেঁচকি ওঠে। তখন এই উপায়ে মিলতে পারে মুক্তি। জলপান করুন- আমরা সকলেই মোটামুটি জানি হেঁচকি উঠলে জলপান করতে হয়। তারপরও অবহেলা করি অনেকে। তবে এই সময়টায় আমাদের বেশি পরিমাণে জলপান করা উচিত। তবেই কমবে সমস্যা। ১. জিভ বের করে

রাখুন- জলপান করার পরও হেঁচকি না কমলে জিভ বের করে রাখুন। এই উপায়ে গলার পেশিতে চাপ পড়ে। ফলে কমে হেঁচকি। ২. ঘাড়ে ম্যাসাজ- হেঁচকি না কমতে চাইলে সামনে থাকা মানুষটির সাহায্য নিন। বলুন ঘাড়ে ম্যাসাজ করতে। এই ম্যাসাজের মাধ্যমে গলা, ঘাড়ে

রক্তচলাচল বাড়ে। পাশাপাশি বাড়ে অক্সিজেন লেভেল। ফলে হেঁচকি কমে ৩. মাখন খান- অন্য কোনও উপায় কাজ না করলে খেয়ে ফেলুন এক চামচ মাখন। মাখনের মধ্যে থাকা ফ্যাট হেঁচকি কমাতে পারে। হাতে ম্যাসাজ- হেঁচকি না কমলে অন্য ব্যক্তি বা অন্য হাতের সাহায্যে

হাতের পাতায় ম্যাসাজ করুন। এভাবেও কমতে পারে হেঁচকি। ৪. অন্যকিছু ভাবুন- হেঁচকি দূর করতে হলে আপনি একটু অন্যমনস্ক হন। খেলতে বসে যান বা মোবাইল ব্যবহার শুরু করে দিন। দেখবেন সমস্যা দূর হয়েছে ৫. চিকিৎসকের পরামর্শ নিন- এইসব পদ্ধতি ব্যবহারের পরও সমস্যা না কমলে আর অপেক্ষা নয়। নিন চিকিৎসকের পরামর্শ। এর পিছনে থাকতে পারে অন্য কোনও কারণ।

About Susmita Roy

Check Also

বিরক্তিকর খুসখুসে কাশি সারানোর ঘরোয়া উপায়

বিরক্তিকর খুসখুসে কাশি সারানোর ঘরোয়া উপায়

শীতে কমবেশি সবাই সর্দি-কাশির সমস্যায় ভোগেন। জ্বর-সর্দি যদিও দ্রুত সেরে যায়, তবে কাশি সহজে সারে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *